ঢাকা, ১৪ জুন, ২০২৪ | জ্যৈষ্ঠ ৩১ ১৪৩১
ঢাকা, ১৪ জুন, ২০২৪       
Shruhid Tea

রোজা অবস্থায় যে কাজগুলো পরিহার করা জরুরি

ধর্ম ডেস্ক বঙ্গবাণী

প্রকাশিত: ১৬:২৭, ২৫ মার্চ ২০২৩

রোজা অবস্থায় যে কাজগুলো পরিহার করা জরুরি

প্রতীকী ছবি

বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর ঘরে ঘরে শুরু হয়ে গেছে মহিমান্বিত মাস রমজান। এ মাসে সব ধরনের পাপাচার, ঝগড়া-বিবাদ কিংবা গালিগালাজ থেকে বিরত থাকা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিধান। উল্লেখ্য, রোজা ছাড়াও ইসলামে ঝগড়া-বিবাদ বা অশ্লীল কথাবার্তা বা গালাগাল নিষিদ্ধ, আর রোজা অবস্থায় আরো বেশি লক্ষণীয়।

যেমন- রোজা অবস্থায় কেউ গালি দিলেও তার জবাবে গালি দেওয়া যাবে না। কেউ মারামারি কিংবা ঝগড়া-বিবাদ করতে চাইলেও তা এড়িয়ে চলতে হবে। এ ব্যাপারে হাদিসে এসেছে-

বিশ্ব নবী রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেছেন, ‘তোমাদের কেউ রোজা রাখলে সে যেন অশ্লীল কথা ও মূর্খতা পরিহার করে। যদি কেউ তাকে গালমন্দ করে কিংবা তার সঙ্গে ঝগড়া-মারামারিতে লিপ্ত হয়, সে যেন বলে, আমি রোজাদার।’

আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, ‘যখন তোমাদের কেউ কোনো দিন রোজা অবস্থায় ভোরে উপনীত হয়, সে যেন অশ্লীল কথাবার্তা ও জাহিলি আচরণ না করে। যদি কেউ তাকে গালাগাল করে বা তার সঙ্গে ঝগড়া-বিবাদে লিপ্ত হতে উদ্যত হয়, তখন সে যেন বলে, আমি রোজা পালনকারী, আমি রোজা পালনকারী।’ (মুসলিম, হাদিস : ২৫৯৩)

প্রিয় নবী (সা.) কথাবার্তায় অশ্লীলভাষার প্রয়োগ পছন্দ করতেন না। তাই মুমিনদের তিনি এ ব্যাপারে বিশেষভাবে সতর্ক করেছেন। হাদিসে ইরশাদ হয়েছে, ‘মুমিন কখনো দোষারোপকারী, অভিশাপদাতা, অশ্লীলভাষী ও গালাগালকারী হয় না।’ (তিরমিজি, হাদিস : ২০৪৩)

বঙ্গবাণীডটকম/এমএস

ধর্ম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত