ঢাকা, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ | ফাল্গুন ১৬ ১৪৩০
ঢাকা, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪       
banner

কূটনীতিকদের এসকর্ট প্রত্যাহার নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিক্রিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক বঙ্গবাণী

প্রকাশিত: ১৮:৩১, ১৬ মে ২০২৩

কূটনীতিকদের এসকর্ট প্রত্যাহার নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিক্রিয়া

মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্ট। ছবি: ফরেন পলিসি

সম্প্রতি বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারত, যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের দূতসহ বেশ কয়েকটি দেশের কূটনীতিকের অতিরিক্ত নিরাপত্তা এসকর্ট প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে সরকার। এর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

দেশটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে, ভিয়েনা কনভেনশন অনুযায়ী সব কূটনৈতিক কর্মীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। তাদের কূটনৈতিক কর্মীদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

স্থানীয় সময় গতকাল সোমবার (১৫ মে) মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রধান উপ-মুখপাত্র বেদান্ত প্যাটেল এমন কথা বলেছেন।

মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি। বেদান্ত প্যাটেল বলেন, আমি মার্কিন দূতাবাস বা এর কর্মীদের নিরাপত্তাসংক্রান্ত বিশদ বিবরণে প্রবেশ করতে যাচ্ছি না।

অবশ্য তিনি উল্লেখ করেছেন যে, ভিয়েনা কনভেনশন অনুযায়ী, কূটনৈতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে যে কোনো স্বাগতিক দেশকে অবশ্যই ‘সকল কূটনৈতিক মিশন প্রাঙ্গণ এবং কর্মীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য তার বাধ্যবাধকতা বজায় রাখতে হবে এবং কর্মীদের ওপর যে কোনো আক্রমণ প্রতিরোধে উপযুক্ত সব পদক্ষেপ নিতে হবে।'

এর আগে সোমাবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, তারা চাইলে অর্থের বিনিময়ে পেতে পারে। আমরা করদাতাদের অর্থ দিয়ে এই অতিরিক্ত (নিরাপত্তা) এসকর্ট পরিষেবা প্রদান করব না।

তিনি আরও বলেন, উন্নত দেশগুলোতে কোনো সরকারই এ ধরনের বাড়তি সুযোগ-সুবিধা দেয় না। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির কোনো অবনতি হয়নি যে এ ধরনের সেবা দেওয়ার প্রয়োজন আছে।

বঙ্গবাণীডটকম/এমএস

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত